চরফ্যাশনের সামুদ্রিক সংরক্ষিত এলাকার অঞ্চল বিভাজন প্রক্রিয়ার উপর ইকোফিশ প্রকল্পের উদ্যোগে পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত ।

তৈয়্যবুর রহমান চরফ্যাশন প্রতিনিধি। ভোলা জেলায় চরফ্যাশন উপজেলার চর কুকরি মুকরি ইউনিয়নে ইউএসএআইডির অর্থায়নে “ইকোফিশ- ২” প্রকল্পের উদ্যোগে নিঝুম দ্বীপ সামুদ্রিক সংরক্ষিত এলাকার অঞ্চল বিভাজন (Marine Protected Area Zonation) প্রক্রিয়ার উপর ইউনিয়ন পর্যায়ে বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় ইউনিয়নের ফরেস্ট রেস্ট হাউজের সম্মেলন কক্ষে এই পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত হয়। অত্র সভায় সভাপতিত্ব করেন চর কুকরি মুকরি ইউনিয়নের সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব অধ্যক্ষ আবুল হাশেম মহাজন। সভায় ইউনিয়ন পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ স্টেকহোল্ডারদের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণের মাধ্যমে চর কুকরি মুকরি ইউনিয়ন সংলগ্ন সমুদ্র অঞ্চলের বিবিধ কার্যক্রম ও ব্যবহারের উপর সংগৃহীত উপাত্ত নিয়ে মতবিনিময় হয়। ইলিশ এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ মৎস্য ও মাৎস্য সম্পদের প্রজনন ও বিচরণ ক্ষেত্র, অভিগমন পথ, বিদ্যমান ও সম্ভাবনাময় পর্যটন এলাকা, বিপন্ন সামুদ্রিক জীব প্রজাতির আবাসস্থল চিহ্নিতকরণ, নৌযান চলাচলের প্রকৃত পথ চিহ্নিতকরণ, বিকল্প কর্মসংস্থান রূপে কাঁকড়া চাষ ও শুটকি প্রস্তুতি বিবিধ বিষয়ে আলোচনা হয়। অনুষ্ঠানে সম্মানিত সভাপতি ও অন্যান্য উপস্থিত অতিথিরা সভা হতে প্রাপ্ত তথ্য কুকরি মুকরি সংলগ্ন সামুদ্রিক সংরক্ষিত এলাকায় বিদ্যমান কার্যক্রম চিত্রায়ন ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা প্রণয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে মর্মে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। উল্লেখ্য; মৎস্য অধিদপ্তর, ওয়ার্ল্ডফিশ, আইইউসিএন বাংলাদেশ ও সুশীলনের বাস্তবায়নে “ইউএসএআইডি ইকোফিশ- ২’’ প্রকল্প ইতোমধ্যেই ২০১৩ সাল থেকে মৎস্য সম্পদ সংরক্ষণ, জেলেদের জীবনমান উন্নয়ন ও সামুদ্রিক জীববৈচিত্র্য সংরক্ষনে উপকূলীয় জেলাসমূহে কাজ করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ইকোফিশ-২ প্রকল্প নিঝুম দ্বীপ সামুদ্রিক সংরক্ষিত এলাকায় উপরোক্ত কর্মসূচি সহ নতুনভাবে সুনীল- অর্থনীতি (ব্লু-ইকোনমি) নিয়ে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

এই বিভাগের সর্বশেষ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button