1. niloykhan1@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. mdfarukhossain096@gmail.com : faruk khan : faruk khan
  3. Seikhlekhun321@gmail.com : room news : room news
  4. shahinurislam6246@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৭:৩৩ পূর্বাহ্ন

লালমনিরহাটের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া কাল বৈশাখী ঝড়ে ঘর-বাড়ি লন্ডভন্ড ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ১ জনের মৃত্যু

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২২
  • ৪১ Time View

লাভলু শেখ স্টাফ রিপোর্টার লালমনিরহাট থেকে।।
লালমনিরহাটের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া কাল বৈশাখী ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ১ জনের মৃত্যু হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত ১২ টার দিকে জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ২ টি ইউনিয়নে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যাওয়ায় এতে ২ শতাধিক কাঁচা ঘর-বাড়ি ভেঙ্গে লন্ডভন্ড হয়েছে চন্দ্রপুর ইউনিয়ান এরপুন্য চন্দ্র বর্মা (৬০)
পিতাঃ পাদুরা বর্মন গ্রামঃ চন্দ্রপুর বাজার ওয়ার্ডঃ ০৮, তার ঠাকুর ঘর সহ ৪টি ঘর লণ্ডভণ্ড হয় ও এসময় ওমর গাজি(৫০)এর মৃত্যু হয়। মাহাতাব আলী, কৃষির মোহন (৬২) পিতা সলেয়া বর্মণসহ আরও অনেকে আহত হয়েছে। এদিকে লালমনিরহাট সদর উপজেলার ৬টি গ্রামের উপর দিয়ে মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে গেছে। এতে ২শতাধিক কাঁচা ঘর-বাড়ি ভেঙ্গে লন্ডভন্ড হয়েছে। বাতাসে উড়ে গেছে অনেক ঘরের চাল ও বেড়া। উপড়ে গেছে গাছপালা আর জমির ভুট্টা গাছ। অনেকের বাড়ির হাঁস-মুরগির বাচ্চা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। কালবৈশাখী ঝড়ে ঘর-বাড়ি হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে রয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলো।
অপরদিকে একই সময় পাটগ্রাম উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে শিলা বৃষ্টি হওয়ায় ধান, ভুট্টাসহ ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন ও কৃষি বিভাগ ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাগুলো পরিদর্শন করছেন।
লালমনিরহাট সদর উপজেলার দিনমজুর রফিকুল ইসলামের স্ত্রী লাইলী বেগম (৪২) জানান, তাদের ২ টি টিনের ঘর রয়েছে এবং ২টি ঘরই কালবৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তিনি ৪ সন্তানকে নিয়ে এখন খোলা আকাশের নিচে রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ হওয়া ঘর মেরামতের জন্য তাদের কোন আর্থিক সামর্থ্য না থাকায় অসহায় হয়ে পড়েছেন বলে তিনি জানান।
একই গ্রামের কদবানু বেওয়া (৬২) জানান, তার একটি টিনের ঘর রয়েছে কিন্তু কালবৈশাখী ঝড়ে তার ঘরের চাল ও বেড়া উড়ে গেছে। ঘর মেরামতের জন্য তার আর্থিকের কোন ব্যবস্হা নেই বলে তিনি জানান।
ওই গ্রামের আমজাদ হোসেন (৬০) জানান,তার ৩টি টিনের ঘর ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তার বাড়িতে ছোট খামারে ১০০০টি মুরগির ছানা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে তিনি জানান।
লালমনিরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ- পরিচালক শামীম আশরাফ জানান, পাটগ্রাম উপজেলার কিছু স্থানে শিলা বৃষ্টিতে ফসলের ক্ষতি হয়েছে। শিলা বৃষ্টি ও কালবৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ ফসলের পরিমান নির্ধারন করতে কৃষি বিভাগ মাঠে কাজ করছে বলে তিনি জানান।
লালমনিরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মাহমুদা মাসুম জানান, কালবৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ ঘর-বাড়ির পরিমান নির্ধান করে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোকে সরকারিভাবে সহায়তা করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশরত্ন.কম
Develper By ITSadik.Xyz