1. niloykhan1@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. mdfarukhossain096@gmail.com : faruk khan : faruk khan
  3. Seikhlekhun321@gmail.com : room news : room news
  4. shahinurislam6246@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৭:২৩ পূর্বাহ্ন

সিরাজগঞ্জের নলকা সেতু খুলে দেয়া হয়েছে উত্তর-দক্ষিণাঞ্চলের ২২ জেলার মানুষের যাতায়াতের এ সড়কটিতে যানজটের শঙ্কা অনেকটা কেটে যাবে হাসান চৌধুরী, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২২
  • ৩৬ Time View

 

উত্তরের ঈদযাত্রায় স্বস্তি ফেরাতে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কে অবস্থিত নবনির্মিত নলকা সেতুর একটি লেন যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। এতে উত্তর-দক্ষিণাঞ্চলের ২২ জেলার মানুষের যাতায়াতের এ সড়কটিতে যানজটের শঙ্কা অনেকটা কেটে যাবে বলে আশা সংশ্লিষ্টদের।
সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আনুষ্ঠানিকভাবে নলকা সেতুর এক লেন খুলে দেন সাসেক-২ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. ওয়ালিউর রহমান। এ সময় তিনি বলেন, উত্তরের ঈদযাত্রা নির্বিঘœ করতে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়কে নবনির্মিত সেতুর এক লেন খুলে দেওয়া হলো। এ লেন দিয়ে ঢাকা থেকে উত্তরবঙ্গগামী যানবাহন চলাচল করবে। আর আপাতত পুরনো সেতু দিয়ে চলবে ঢাকামুখী গাড়িগুলো। সেতুটি খুলে দেওয়ায় দীর্ঘদিনের যানজটের অন্যতম প্রধান কারণ থেকে মুক্ত হলো মহাসড়কটি।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- সাসেক-২ প্রকল্পের অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক জয়প্রকাশ চৌধুরী, অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক-১ গোলাম মুর্তজা, অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক-২ হামিদুল হক, বঙ্গবন্ধু সেতু কর্তৃপক্ষের নির্বাহী প্রকৌশলী ও সাসেক-২ প্রকল্প ব্যবস্থাপক আহসান মাসুদ বাপ্পী, প্রকল্প ব্যবস্থাপক-৩ মাহবুবুর রহমন, প্রকল্প ব্যবস্থাপক-৪ মামুন কায়সার, উপ-প্রকল্প ব্যবস্থাপক-২ আবু সাদ, সাসেক-১ এর অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক নূর-এ আলম, সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী দিদারুল ইসলাম তরফদার, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মীর আখতার হোসেন লিমিটেডের প্রকল্প ব্যাবস্থাপক এখলাসুর রহমান প্রমুখ।
উল্লেখ্য যে, ঢাকার সঙ্গে উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের ২২ জেলার সড়ক পথে যোগাযোগের অন্যতম রুটে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়ক। ১৯৮৮ সালে এ মহাসড়কের নলকা নামক এলাকায় ফুলজোড় নদীর ওপর একটি সেতু নির্মাণ হয়। বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণ হওয়ার পর এ সেতুর ওপর চাপ বাড়তে থাকে। কমতে থাকে এর স্থায়ীত্বকাল। একপর্যায়ে সেতুটি জরাজীর্ণ হয়ে পড়ায় এর ওপর দিয়ে ধীরগতিতে চলাচল করে যানবাহন। এ কারণে জরাজীর্ণ এ সেতুটিকে ঘিরে প্রতিবছর ঈদেই পুরো মহাসড়কে ভোগান্তি পোহাতে হয় এই মহাসড়কে যাতাযতকারীদের । পরে সাসেক-২ প্রকল্পের এলেঙ্গা-রংপুর চারলেন মহাসড়ক নির্মাণের আওতায় নতুন করে সেতুটি নির্মাণ করা হয়। ২৮৯ মিটার দৈর্ঘ্যের এ সেতুটির ওপর রেলিং নির্মাণ, একটি লেনের কার্পেটিং অলঙ্কারকরণ ও সৌন্দর্য্যবর্ধনসহ বেশ কিছু কাজ এখনো বাকি। কিন্তু আসছে ঈদে বাড়তি গাড়ির চাপ সামাল দিয়ে যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে সোমবার সেতুর একটি লেন খুলে দেওয়া হলো।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশরত্ন.কম
Develper By ITSadik.Xyz