1. niloykhan1@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  2. mdfarukhossain096@gmail.com : faruk khan : faruk khan
  3. Seikhlekhun321@gmail.com : room news : room news
  4. shahinurislam6246@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৫৯ পূর্বাহ্ন

লালমনিরহাটে চা চাষ সম্প্রসারনে সমস্যা ও সমাধান বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত।

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২০ অক্টোবর, ২০২১
  • ৯ Time View

ফারুক হোসাইন, জেলা প্রতিনিধি লালমনিরহাট।

আজ ১৯ শে অক্টোবর ২০২১ ইং রোজ মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় লালমনিরহাট জেলা প্রসাশকের সম্মেলণ কক্ষে বাংলাদেশ চা বোর্ড হাতিবান্ধা শাখার উদ্যোগে, জেলা প্রসাষন লালমনিরহাট এর সহযোগিতায় চা চাষ সম্প্রসারনে সমস্যা ও সমাধান বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মেজর জেনারেল মোঃ আশরাফুল ইসলাম, এনডিসি, পিএসসি, চেয়াম্যান, বাংলাদেশ চা বোর্ড।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাবা, আবিদা সুলতানা, পুলিশ সুপার, লালমনিরহাট এবং এডভোকেট মতিয়ার রহমান, চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদ, লালমনিরহাট।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জনাব মোঃ আবু জাফর, জেলা প্রশাসক, লালমনিরহাট সহ আরো উপস্থিত ছিলেন জেলার বিভিন্ন এলাকার চা চাষীগন সহ অন্যান্ন ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জনাব আরিফ খান, পরিচালক, লালমনিরহাট চা প্রকল্প, হাতিবান্ধা শাখা।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করে জেলার বিভিন্ন চা চাষীগণ সমস্যার কথা প্রধান অতিথির সামনে তুলে ধরেন, এবং তা সমাধানের জন্য বিশেষ ভাবে সহযোগিতা কামনা করেন।

চা চাষীগণ তাদের চা আবাদে বিভিন্ন সমস্যার মধ্যে উল্লেখ যোগ্য সমস্যাগুলো হলোঃ
১। চা চাষীদের মাঝে সহজ শর্তে ঋন প্রদানের ব্যবস্থা করা।
২। বিক্রয় কেন্দ্র ও চা কারখানা স্থাপন করা।
৩। পর্যাপ্ত পরিমানে কীটনাশক ও সার এর ব্যবস্থা করা।
৪। চা পরিবহনের ব্যবস্থা করা।
৫। চা এর সঙ্গে পর্যটন ও রিসোর্ট নির্মাণ করা সহ ইত্যাদি সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

এ বিষয়ে প্রধান অতিথি মেজর জেনারেল মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেন, আমি আপনাদের সকল সমস্যার কথা শুনলাম এবং তা অতি তারাতারি বাস্তবায়ন করার জন্য চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ। তিনি লালমনিরহাটে চা চাষে ভবিষ্যত সম্ভাবনা ও সমস্যার সমাধানে বলেন লালমনিরহাটে ২০০৫ সালে চা চাষে ক্ষুদ্র চাষীদের নিয়ে কর্মসূচী চালু করা হয় আর সে পরিপেক্ষিতেই আজকে লালমনিরহাটে ১৫৭ একর জমিতে চা চাষ করা সম্ভব হয় এবং তা শুধু ক্ষুদ্র চা চাষীদের জন্যই সম্ভব হয়েছে।

এর পরবর্তীতে এখানে যে ক্ষুদ্র প্রজেক্ট গুলো নেওয়া হয়েছে তাও শুধু এই ক্ষুদ্র চা চাষীদের জন্যই এখানে স্বল্প মূল্য চা চারা বিতরণ করা হচ্ছে। চা চাষীদের বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষা দেওয়ার জন্য ক্যামেলিয়া খোলা আকাশ স্কুল চালু রেখেছি। এবং আজকে আমি যে বাগানগুলো ঘুরে দেখেছি সেগুলো আমার চাহিদার চেয়েও অনেক ভালো হয়েছে ইনশাআল্লাহ, আশা করি সামনে আরো ভালো দেখতে পারবো।

তিনি আরো বলেন এ জেলায় ভবিষ্যতে একটি স্থায়ী অফিস হবে, এবং চা চারার নার্সারি থাকবে, তিনি এ জেলার চা বাগানগুলি পরিদর্শন করে বলেন পন্ঞ্চগড়, সিলেট, শ্রীমঙ্গল এর মতই এ জেলা এক সময় রুপ নিবে সেই লক্ষেই আমরা সামনে এগিয়ে যাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, চা চাষে ২% হারে ঋনের জন্য বিএডিসির মাঠ পর্যায়ে যে কর্মকর্তাগন রয়েছেন তারা চা চাষীদের সাথে সমন্বয় করে স্বল্প সুদে কিভাবে ঋন বিতরণ করা যায় তা নিয়ে কাজ করছেন। আমি সব মিলিয়ে আশা করছি এক সময় এ জেলাটিও অন্যান্ন চা আবাদী জেলার মতই হবে।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন আবিদা সুলতানা, জেলা প্রশাসক, লালমনিরহাট ও জনাব মোঃ আবু জাফর, জেলা প্রশাসক, লালমনিরহাট মহদয়।

সব শেষে সকল চাষীদের সুন্দর বাগান করার জন্য আরো কিছু মুল্যবান কথা বলে অনুষ্ঠান সমাপ্ত ঘোষণা করেন অনুষ্ঠানের সভাপতি জনাব মোঃ আবু জাফর, জেলা প্রশাসক, লালমনিরহাট।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশরত্ন.কম
Develper By ITSadik.Xyz