গজারিয়ায় দলীয় প্রভাবের শিকারে যুবক মিম মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে

গজারিয়ায় দলীয় প্রভাবের শিকারে যুবক মিম মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে

গজারিয়া প্রতিনিধিঃ মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় হোসেন্দী ইউনিয়নে আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে একাধিক দলীয় নির্বাচনী প্রার্থীর প্রভাব বিস্তার কেন্দ্র করে প্রার্থীদের সমর্থকদের মাঝে চলছে অস্তিত্বের লড়াই।
প্রভাব বিস্তার সংগ্রামে চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় একই ইউনিয়নের গোয়ালগাও গ্রামের আব্দুল সাত্তারের ছেলে যুবক মিম মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
গত বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ ঘটিকায় গোয়ালগাও এলাকায় ইসমানির চর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন কিন্ডার গার্ডেন স্কুল কক্ষে চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের দলে না থাকা কে কেন্দ্র করে মীমকে স্কুল কক্ষে বেধে হাতুড়ি পেটা করেছে প্রতিপক্ষ সমর্থক গং।
আহত মিম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
আহত মিমের বাবা আব্দুস সাত্তার জানান বুধবার সকালে ছেলে মিমকে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে ইসমানিরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন কিন্ডারগার্ডেন স্কুল কক্ষে বেধে ইসমানিরচর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে আতাউর, বাসেদের ছেলে সংগ্রাম ,আলী হোসেন মেম্বার সাবেক,সাব্বির ,সাগরসহ আট থেকে দশজন হাতুড়ি দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে পিটিয়েছে মিমকে। আমার ছেলে ভালো হতে চেয়েছিল। গত ইউপি নির্বাচনের সময় ইসমানির চর গ্রাম একটি হত্যাকান্ড ঘটনায় ছেলে মিম আসামি হয়েছিল। তখন থেকে আমরা এলাকাছাড়া ছিলাম ।ডাক্তার মাজহারুল হক তপনের সহায়তায় গ্রামে এসেছি এখন তাদের লোক আতাউর, সংগ্রাম, সাগর আমার ছেলে মীমকে হত্যার উদ্দেশ্যে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়েছে । আমার ছেলেকে মারপিট করার সময় ইমন, রাজন স্কুলের পাশ দিয়া আসতেছিল ।ছেলে মিমের চিৎকারে তারা দেখে উদ্ধার করে মীমকে। ইমন প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় মিমকে। ছেলে মীমকে কেন হাতুড়িপেটা করেছে হারুন ও ইব্রাহিম ভালো বলতে পারবে ।বর্তমানে মিম হারুন ইব্রাহিমের সাথে চলাচল বেশি করেন। হারুন মোবাইলে জানান মিম পূর্বে ডাক্তার তপনের দল করতেন টিটু হাজী ডাক্তার তপনের সভা সমাবেশে যোগদান করতেন ।বর্তমানে আক্তার হাজির সভায় যাওয়া-আসা করেন মিম। আমাদের সাথে আক্তার হাজী কে সমর্থন করায় ডাক্তার তপন সমর্থক ইসমানিচর গ্রামের আতাউর ,সংগ্রাম, আলী হোসেন সাবেক মেম্বার এই কাজ করেছে।
রাজনৈতিক প্রভাব বিস্তার এবং একপক্ষ সমর্থক প্রতিপক্ষ চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সমর্থন করায় এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে। হাজী মমিনুল হক টিটু জিজ্ঞাসাবাদে জানান এমন ঘটনা এলাকায় ঘটেছে, বিষয়টি আমি অবগত নই ।আহত মিম কোন প্রার্থীর সমর্থক তাও জানা নাই ।ডাক্তার মাজহারুল হক তপন এবং আমাদের সমর্থক কিনা এই বিষয়টিও আমি জানা নেই। হামলাকারী গং কাদের সমর্থক কী না তাও জানা নেই।গজারিয়া থানার ডিউটি অফিসার এস আই আনিস জানান এই বিষয়ে অভিযোগ হয়েছে কিনা আমি অবগত নেই ।আমি বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে ডিউটি তে কর্মরত আছি।

এই বিভাগের সর্বশেষ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button